জাতির জনকের আদর্শ বাস্তবায়িত না হলে সোনার বাংলা গঠন সম্ভব নয়

জাতির জনকের আদর্শ বাস্তবায়িত না হলে সোনার বাংলা গঠন সম্ভব নয়

আমি চাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাস্তবায়ন। আর বঙ্গবন্ধুর আদর্শ হচ্ছে এই দেশের মেহনতি মানুষ, খেটে খাওয়া মানুষ স্বাচ্ছন্দে থাকবে, ভালো থাকবে। তাদের সম্মান নিশ্চিত হবে। তৃণমূলের মানুষের স্বাস্থ্য, শিক্ষা ও যোগাযোগব্যবস্থার উন্নতি হবে।

আমি মনে করি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাস্তবায়নই হবে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার প্রধান হাতিয়ার। আমরা সবাই মিলে যেন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের বাস্তবায়ন করতে পারি সেটাই আমার প্রচেষ্টা।

বঙ্গবন্ধু বলছেন, ‘এই যে ডাক্তার সাহেব, এই যে ইঞ্জিনিয়ার সাহেব, এই যে অফিসার সাহেব আপনারা চলেন কার টাকায়। এই দেশের মেহনতি মানুষের টাকায় আপনারা চলেন। জনগণের ট্যাক্সের টাকায় আপনাদের বেতন হয়।’ বঙ্গবন্ধু তাদের উদ্দেশ্যে বলেছেন সাধারণ মানুষ, খেটে খাওয়া মানুষের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা যাবে না। তাদেরকে উপযুক্ত সম্মান দিয়ে চলতে হবে।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ এটাই। কিন্তু আমরা দেখতে পাচ্ছি কেউ কেউ জনগণের ভোট নিয়ে জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে ভোগ-বিলাসে ব্যস্ত আছেন। সাধারণ জনগণকে, আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীকে অসম্মান করছে। এটি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ না।’

বঙ্গবন্ধুর শোনার বাংলা গড়ার জন্য তার বড় মেয়ে শেখ হাসিনা এবং পর্দার আড়ালে তার ছোট মেয়ে শেখ রেহানা অক্লান্ত পরিশ্রম করছেন। আমরা যারা বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক আমাদের আরও বেশি করে তাদেরকে সমর্থন যোগাতে হবে। সেটি যদি করতে হয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এমন প্রার্থীকে নৌকা মার্কায় প্রার্থী করতে হবে যারা সাধারণ মানুষের সম্মান করতে পারে। আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মী ভোটারদের সম্মান করতে পারে।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে আমাদের ধারণ করতে হবে। এর জন্য আগামী নির্বাচনে জামায়াত-বিএনপি কুচক্রী মহলকে যেকোনো মূল্যে ক্ষমতার বাইরে রাখতে হবে। তারা কিন্তু এক হচ্ছে, ভেতরে ভেতরে ষড়যন্ত্র করছে। কারণ যেভাবে সারাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শে যেভাবে উন্নয়ন হচ্ছে, তাদের কিন্তু ঘুম হারাম হয়ে গেছে।

২৮ আগস্ট ২০১৮

Leave a Comment