প্রবাসে মৃত্যু হলে, লাশটা আমার বাংলায় পৌঁছে দিও

প্রবাসে মৃত্যু হলে, লাশটা আমার বাংলায় পৌঁছে দিও

একজন প্রবাসী শরীরের রক্তকে পানি করে বাড়ি/দেশে টাকা পাঠায়। প্রবাসীরা রাস্তার পাশে বসে খেলেও বাড়ির লোকদের জন্য ডাইনিং টেবিলের ব্যবস্থা করে। আর সেই প্রবাসী যখন বিদেশে কোন দুর্ঘটনায় মারা যায়, তখন তার লাশটি পরিবার গ্রহণ করতে চায়না। কারন মরদেহটি দেশে আনতে এবং দাফন সম্পন্ন করতে টাকার প্রয়োজন। যা বহন করতে পরিবার অস্বীকার করে।

সম্প্রতি ইউরোপে যাওয়ায় পথে, আমার এলাকার এক ছোটভাই মারাগেলে তার লাশ পরিবার গ্রহণ করতে চায়নি। আমি তাদের ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করবোনা, যারা উদ্যোগ নিয়ে ওর লাশটা দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করতেছেন।

ভাই সত্য বলতে, প্রবাসীদের জীবনে থাকেনা সুখের অভিজ্ঞতা, মরেনও থাকেনা শান্তি। এরা জন্মেছে পরিবারের সদস্যদের সুখে রাখার জন্য, নিজে শত কষ্টে থাকা স্বত্বেও সবার সাথে হাসিমুখে কথা বলার জন্য। আজ আপনি রোজগার করে, প্রতিমাসে বাড়িতে টাকা পাঠান তাই আপনার কদর বেশি। দুই-তিন মাস টাকা দেওয়া বন্ধ করে দিলে বুঝবেন, না আপনার প্রতি, না আপনার স্ত্রী সন্তানের প্রতি কারো মায়া আছে। মূলত আপনার প্রতি তাদের মায়া নেই, মায়া শুধু আপনার পাঠানো টাকার প্রতি।

-এইচ এ বিল্লাল হোসেন   

Leave a Comment